সংবাদ শিরোনাম


টেকসই অর্থনীতির অন্যতম উপাদান বীমা-হাসান তারেক, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা : কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড

Bank Bima Shilpa    ০৭:৫০ পিএম, ২০২১-১১-৩০    100


টেকসই অর্থনীতির অন্যতম উপাদান বীমা-হাসান তারেক, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা : কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড

হাসান তারেক, নন-লাইফ বীমা সেক্টরের অভিজ্ঞতালব্দ, হাসোজ্জ্যল ও সদালাপী একজন উদীয়মান বীমা ব্যক্তিত্ব। দায়িত্ব না নিলে যেমন দায়িত্বশীল ব্যক্তি হওয়া যায়না তেমনি দায়িত্ব তাদের উপরেই ন্যস্ত হয় যাদের দায়িত্ব বহনের ক্ষমতা আছে আর যখন কেউ অতিরিক্ত দায়িত্বভার গ্রহণ করেন, তখন প্রকৃতপক্ষে তাদের পদোন্নতি হয়। সাফল্যের জন্য প্রয়োজনীয় সব গুনাবলি নিয়েই তিনি আজ বীমা ব্যক্তিত্ব। যিনি একজন ব্যাংকার হয়েও বীমার মতো চ্যালেঞ্জিং পেশা বেছে নিতে  বিন্দু পরিমানে কুন্ঠাবোধ করেননি। প্রকৃতপক্ষে প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়েই প্রতিযোগীরা বেড়ে ওঠে এবং কাজ সুসম্পন্ন করার তৃপ্তিই বড় পুরুস্কার। যে কাজ করতে হবে সেই কাজকে ভালবাসতে শেখা দরকার তেমনিভাবেই মেধা, মননশীলতা এবং কঠোর অধ্যাবসায় ও সাধনার সংমিশ্রনে আজ তিনি কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের সর্বোচ্চ পদ সিইও’র আসন অলংকৃত করে যাচ্ছেন। আমি মোঃ আবুল বাশার হাওলাদার, সম্পাদক ব্যাংক বীমা শিল্প পত্রিকার পক্ষ থেকে তার মুখোমুখি হয়েছিলাম নন লাইফ বীমা বিষয়ে নানান খুটিনাটি বিষয়ে জানার জন্য, যা নিম্মে সাক্ষাৎকার হিসেবে উপস্থাপন করা হইল...  
ব্যাংক বীমা শিল্প : আপনার সম্পর্কে বলুন, বিশেষ করে বীমা পেশাকে ক্যারিয়ার হিসেবে কেন বেছে নিলেন?

হাসান তারেক : আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাষ্টার্স ডিগ্রী অজর্ন করে প্রথমে অফিসার হিসাবে উত্তরা ব্যাংক এ চাকুরীতে যোগদানের মাধ্যমে আমার পেশাজীবন শুরু করি। তখনও ইন্স্যুরেন্স পেশায় লোকজনের আগ্রহের জায়গা তৈরি হয়নি। আমার বাবা একজন দেশবরেণ্য ব্যাংকার ছিলেন। সেই সুবাদে বিভিন্ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা আমার বাবার কাছে আসতেন। মূলত তারা আমাকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছিলেন যে, ব্যাংক থেকে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীতে ক্যারিয়ার গঠনে অধিক সুযোগ রয়েছে এবং এভাবেই তাদের কথায় অনেকটা অনুপ্রাণিত হয়ে এই চ্যালেঞ্জিং বীমা পেশায় আমার আসা। আমি ১৯৯৭ সালে একটি বেসরকারী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীতে অফিসার হিসাবে আমার বীমা পেশা শুরু করি। তারপর পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করি এবং কোম্পানীর বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে কাজ করি। পরবর্তীতে ২০০৩ সালে কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এ যোগদান করি এবং বিভিন্ন পদবী নিয়ে সম্মানের সহিত কাজ করে আসছি। বর্তমানে আমি ২০২১ সালের ১লা জানুয়ারী থেকে কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কমর্র্কতা হিসাবে কর্মরত আছি। বীমা পেশার উপর প্রশিক্ষন নিতে থাইল্যান্ড, ভারত, সিঙ্গাপুর এ বিভিন্ন ট্রেনিং এ অংশ গ্রহন করেছি। এছাড়া জাপান, মালায়েশিয়া, মিশর, সৌদিআরব, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা সহ বিভিন্ন দেশ ভ্রমন করেছি। এর ফলে অত্যন্ত কাছ থেকে পর্যবেক্ষন করেছি যে, বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর বীমা শিল্পের তুলনায় বাংলাদেশের অবস্থান। চিহ্নিত করেছি বিভিন্ন সমস্যা, এখন কোম্পানীর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসাবে চেষ্টা করছি এবং করব সেই সকল সমস্যা সমাধানের জন্য। এজন্যই আমৃত্যু বীমা পেশায় নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতে বদ্ধ পরিকর।


ব্যাংক বীমা শিল্প : কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স এর ব্যবসায়িক অবস্থান এবং ভবিষৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাচ্ছি?
হাসান তারেক : মানুষ বীমা কেনে না, বীমা বিক্রী করতে হয়। মানুষ তার সংসারের প্রয়োজনে বিভিন্ন জিনিস ক্রয় করে, কিন্তু বীমা ক্রয় করে না। কোন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, প্রভাষক, সমাজ সেবক কেউ কোন দিন বীমা অফিসে এসে বলে নাই যে, আমি একটা বীমা করবো। এ জাতীয় ঘটনা বিরল। মানুষকে বীমা করানো হয়। বীমা করানোর এ প্রক্রিয়াটা প্রাইভেট সেক্টরে চমৎকার ভাবে শুরু করতে পেরেছে। আমাদের কোম্পানী শতভাগ ডিজিটাল কার্যক্রমের মাধ্যমে পরিচালিত করার চেষ্টা করছি। আইটি সম্পর্কে নূন্যতম ধারনা না থাকলে কেউ চাকরির আবেদনও করতে পারে না, আর অনিয়ম দুর্নীতি ঠেকানোর জন্য ডিজিটাল পদ্ধতি অতুলনীয় ভুমিকা রাখছে। যা দেশি ও বিদেশি কোম্পানিগুলোর কাছেও অনুকরনীয় বলে আমি মনে করি। কোম্পানি ও গ্রাহক সেবা নিশ্চিতে অনলাইন সার্ভিসের বিকল্প নেই। তাই আমরা কোম্পানির সামগ্রিক ব্যবস্থাপনা, মনিটরিং এন্ড কন্ট্রোলিং ডিজিটালাইজড পদ্ধতিতে করি। বীমা পেশা গুরুমুখী পেশা, সিনিয়রের সহযোগীতা ও আন্তরিকতা ছাড়া কর্মী থেকে কেউ লিডার হতে পারে না। একইভাবে কর্মীকেও সিনিয়রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে হবে। যদিও বর্তমান প্রজন্মের কর্মীদের মধ্যে সম্মানবোধ তেমন লক্ষ্য করা যায় না তাই লিডার ও সৃষ্টি হচ্ছে না। বীমা শিল্পে যারা উন্নয়ন কাজে মাঠে ময়দানে ঘুরে বেড়ান তাদের অনেক প্রতিকুল অবস্থার সম্মুখীন হতে হয়। দিনের পর দিন ঘুরে কোন পলিসির সন্ধান না পেয়ে অনেকে হতাশ হয়ে যান। হতাশ হয়ে কোম্পানি বদল করেন, কেউ পেশা বদল করেন। সাত ঘাটের জল খেয়ে কোনটা ভাল কোনটা খারাপ এটা বুঝার ক্ষমতা অনেকেই হারিয়ে ফেলেন। হতাশ এবং ব্যর্থ লোকদের পাশে দাঁড়াবার কেউ নেই। বীমা শিল্পে এক জীবন যুদ্ধে হেরে যাওয়া মানুষেরা কোন এক সফল ব্যক্তির অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে আবার ঘুরে দাড়াতে পারে, জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে পারে। মানুষ এ পেশায় এসে আনলিমিটেড ইনকাম করে, গাড়ি কিনে, বাড়ি করে। একের প্রতি অপরের স্নেহ ও সম্মান বোধের জন্যই আমাদের সময়ে সম্পর্কগুলো নিবিড় হয়ে উঠেছিল। সর্বশেষ বীমা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই কঠোর শ্রম, পেশার প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা, গ্রাহক ও সিনিয়রের প্রতি সম্মানবোধ ও সততা নিয়ে লক্ষ্য অর্জনে এগিয়ে গেলে সফলতা একদিন আসবেই।


ব্যাংক বীমা শিল্প : বর্তমান সরকারের প্রচেষ্টায় দেশে এখন বীমা দিবস, বীমা মেলাসহ নানান সভা, সেমিনার, হচ্ছে এই খাতকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য। তারপরও বীমা সম্পর্কে মানুষের নেতিবাচক ধারনা কেন?
হাসান তারেক : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, স্বাধীনতা যুদ্ধের সর্বাধিনায়ক স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, একজন বীমা ব্যক্তিত্ব ছিলেন। একজন বীমা পেশাজীবি হিসেবে আমি গর্বিত। এই ধারাবাহিকতায় জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের উন্নয়নের রুপকার, বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল, বিশ্ব শান্তি ও মানবতার প্রতীক, মাদার অব হিউম্যানিটি, বহু আন্তর্জাতিক পুরষ্কারে ভূষিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বীমার গুরুত্ব অনুধাবন করে পুরাতন বীমা আইনকে ঢেলে সাজিয়ে নতুন বীমা আইন, ২০১০ প্রনয়ণ করেন। পাশাপাশি প্রনয়ণ করেন বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১০ এবং বীমাখাতে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে ২০১১ সালে অধিদপ্তর বিলুপ্ত করে প্রতিষ্ঠা করেন বীমা উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণ কতৃপক্ষ। এছাড়া বীমা শিল্পকে বাণিজ্য মন্ত্রনালয় থেকে অর্থ মন্ত্রনালয়ে আওতাভুক্ত করেন। যা ছিল একটি যুগান্তরকারী পদক্ষেপ। এই কারনে বীমা শিল্পের গুরুত্ব অনেক বেড়েছে। বীমা একটি গুরুত্বপূর্ন সেবাখাত। বীমার মাধ্যমে মানুষের জীবন ও সম্পদের আর্থিক ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে আর্থিক সুরক্ষা প্রদানের ক্ষেত্রে বীমা একটি অন্যতম হাতিয়ার। তাই সরকার বীমা খাতের প্রসারে ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছে। শীঘ্রই পুরো বীমাখাত অটোমেশনের আওতায় চলে আসবে বলে আমরা আশাবাদী। বীমা সংশ্লিষ্ট সকল অংশীজনদের সম্পৃক্ততায় বীমা শিল্পের সম্প্রসারণ ও কাঙ্খিত উন্নয়ণ হবে এই আমাদের প্রত্যাশা। টেকসই অর্থনীতির অন্যতম উপাদান হল বীমা। বীমার উন্নয়ন ব্যতিত কোন দেশই দীর্ঘ মেয়াদে টেকসই অর্থনৈতিক অবস্থা বজায় রাখতে পারে না। আমি মনে করি মেধাবী ও শিক্ষিত জনগোষ্ঠীকে বীমা পেশায় সম্পৃক্ত করতে হলে অভিন্ন বেতন কাঠামো এবং টার্গেট ভিত্তিক আকর্ষণীয় ইনসেনটিভ চালু করা প্রয়োজন। শুধু এজেন্ট স্তরে কমিশন প্রথা চালু রেখে উপরের স্তরে নূন্যতম বেসিক সেলারী এবং টার্গেটভিত্তিক ইনসেনটিভ চালু করতে হবে। অন্যথায় শুধু কমিশনভিত্তিক কাজে মেধাবী শিক্ষিত প্রজন্ম সম্পৃক্ত হতে উৎসাহিত হবে না।


ব্যাংক বীমা শিল্প : বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) এর নিয়ন্ত্রন নিয়ে আপনার মূল্যায়ন?
হাসান তারেক : গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতির জনকের বীমাশিল্পে যোগদানের তারিখ ১লা মার্চ কে জাতীয় বীমা দিবস ঘোষণা করায় বীমাশিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞ। মানুষের জীবন, স্বাস্থ্য ও সম্পত্তির ঝুঁকি আবহমান কালের। সরকার বীমা বিষয়ে বিধি-বিধান প্রণয়নসহ নানাবিধ সংস্কার কর্মসূচির মাধ্যমে বীমা শিল্পকে গতানুগতিক ধারা থেকে নিয়মতান্ত্রিক ধারায় চালিত করার প্রয়াস চালিয়ে আসছে, যার ব্যাপক প্রভাব ও সুফল ইতিমধ্যে বাংলাদেশের বীমা শিল্পে পরিলক্ষিত হচ্ছে। জাতির পিতার সোনার বাংলা গড়ার সহায়ক ভূমিকা হিসেবে মানব ও সম্পত্তির সামাজিক ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে বীমা শিল্পের সঠিক লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নির্ধারণ এবং বাস্তবায়নে প্রথমবারের মত জাতীয় বীমানীতি ২০১৪ প্রণয়ন করা হয়েছে। আশা করা যায় জাতীয় বীমানীতি ২০১৪ প্রণয়ণের ফলে বীমাযোগ্য ঝুঁকিসমূহ নিরসনে বীমা সম্বন্ধে মানুষের সচেতনতা সৃষ্টি, বীমা প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা উন্নয়ন, আর্থিক শৃংখলা বজায়, বীমাসেবা পরিচালনায় পেশাদারিত্ব সৃষ্টি এবং বীমা সেবার সাথে জড়িত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে অনিয়ম অব্যবস্থাপনা এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ করে বীমা খাতকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রনে সময়োপযোগী দিক নির্দেশনা প্রদান সম্ভব হবে। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষের লক্ষ্য হচ্ছে দেশের সম্পদ ও জীবনের ঝুঁকির শতভাগ বীমার আওতায় নিয়ে আসা। বীমাশিল্পের উন্নয়ন ও বীমা সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বীমাদিবস উদযাপন করা হচ্ছে। বীমা দিবস ও বীমা মেলা পালন, বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষের একটি উল্লেখযোগ্য অবদান। বীমা কোম্পানীগুলির ব্যাংক হিসাবের সংখ্যা নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে অর্থনৈতিক শৃংখলা ফিরিয়ে এনেছে। টগচ প্রচলনের মাধ্যমে গ্রাহকদের আস্থার জায়গা বৃদ্ধি করেছে। বীমা ব্যবসার কলেবরের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে বীমার ব্যবস্থাপনা ব্যয় সীমা নির্ধারণ হওয়া উচিত। বীমা কোম্পানীগুলোর জন্য প্রিমিয়াম জমা করণের জন্য আলাদা, খরচ পরিশোধের জন্য আলাদা হিসাব, দাবী পরিশোধের জন্য আলাদা হিসাব, রিইন্স্যুরেন্স এর জন্য আলাদা হিসাব, এই নিয়ন্ত্রিত হিসাব সংখ্যা সংরক্ষণের মাধ্যমে একটি উল্লেখযোগ্য নিয়ন্ত্রণ এনেছেন বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষ। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষের প্রত্যক্ষ নজরদারীর কারনে বীমা দাবী পরিশোধে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষ বাকী ব্যবসায়ের চর্চা বন্ধের চেষ্টা ??


রিটেলেড নিউজ

পরিবারের সুরক্ষায় জীবন বীমা বাধ্যতামূলক করা হোক

পরিবারের সুরক্ষায় জীবন বীমা বাধ্যতামূলক করা হোক

Bank Bima Shilpa

মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন শাহীন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও স্বদেশ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী ল... বিস্তারিত

বীমা এখন সম্মানের পেশা

বীমা এখন সম্মানের পেশা

Bank Bima Shilpa

মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা : মেঘনা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড মোহাম্... বিস্তারিত

প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার জাতীয় বীমানীতি সফলতার চাবিকাঠি

প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার জাতীয় বীমানীতি সফলতার চাবিকাঠি

Bank Bima Shilpa

মোঃ মোশারফ হোসেন, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা : গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড মো. মোশারফ হোসেন একজন প... বিস্তারিত

ঝুঁকিকে কমিয়ে আনার জন্য বীমা হলো একটি উত্তম সহায়ক মাধ্যম

ঝুঁকিকে কমিয়ে আনার জন্য বীমা হলো একটি উত্তম সহায়ক মাধ্যম

Bank Bima Shilpa

সাঈদ আহমেদ, চেয়ারম্যান : গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড সাঈদ আহমেদ একজন উদ্যোক্তা ও শিল্পপতি হিসেব... বিস্তারিত

সরকারী পদক্ষেপ ও ভূমিকাই পারে জীবন বীমার ব্যাপ্তি বৃদ্ধি করতে

সরকারী পদক্ষেপ ও ভূমিকাই পারে জীবন বীমার ব্যাপ্তি বৃদ্ধি করতে

Bank Bima Shilpa

কামরুল হাসান খন্দকার, মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (চ: দা:), যমুনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কামরুল হাসান খন্দক... বিস্তারিত

পেশাগত শিক্ষা দক্ষতা ও প্রশিক্ষণ ছাড়া বীমা শিল্পের প্রসারতা বা আধুনিকায়ন অসম্ভব

পেশাগত শিক্ষা দক্ষতা ও প্রশিক্ষণ ছাড়া বীমা শিল্পের প্রসারতা বা আধুনিকায়ন অসম্ভব

Bank Bima Shilpa

বদরুল আলম খান : চেয়ারম্যান, যমুনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড যমুনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম... বিস্তারিত

সর্বশেষ

বেঙ্গল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাথে ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

বেঙ্গল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাথে ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

Bank Bima Shilpa

বেঙ্গল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাথে ইনসাফ বারাকাহ হাসপাতালের (স্বাস্থ্য সেবা) কর্পোরেট চুক্... বিস্তারিত

মুজিব শতবর্ষ বিজয়ের সুবর্ন জয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সম্মননা প্রদান করা হলো ঢাকা ৫-আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী মনিরুল ইসলাম মনু

মুজিব শতবর্ষ বিজয়ের সুবর্ন জয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সম্মননা প্রদান করা হলো ঢাকা ৫-আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী মনিরুল ইসলাম মনু

Bank Bima Shilpa

নাজমুল হাসান : পূর্বাঞ্চল সাংবাদিক ইউনিটি আয়োজিত মুজিব শতবর্ষ বিজয়ের সুবর্ন জয়ন্তী উদযাপন অনুষ... বিস্তারিত

ব্যবসায়ে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য এবিএস ক্যাবলস্ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালককে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান

ব্যবসায়ে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য এবিএস ক্যাবলস্ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালককে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান

Bank Bima Shilpa

ডেস্ক রিপোর্ট: সম্প্রতি অনুষ্ঠিত কোরিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ ((KBCCI) এর বার্... বিস্তারিত

ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট এবং এসজেআইবিএল মুদারাবা পার্পেচুয়াল বন্ডের ইস্যু ম্যানেজার এর সাথে লেনদেনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন

ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট এবং এসজেআইবিএল মুদারাবা পার্পেচুয়াল বন্ডের ইস্যু ম্যানেজার এর সাথে লেনদেনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন

Bank Bima Shilpa

ডেস্ক রিপোর্ট: গতকাল ২৬ ডিসেম্বর , ২০২১ইং তারিখে এসজেআইবিএল মুদারাবা পার্পেচুয়াল বন্ডের লেনদেনের... বিস্তারিত